রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০১:২০ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
রাজারহাট উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির মানববন্ধন আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার পক্ষে একজোট হয়ে কাজ করতে হবে বাণিজ্যমন্ত্রী সাভারে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের ময়লা পরিষ্কার পবিপ্রবি রোভার এন্ড গার্ল-ইন রোভারের ইউনিফর্ম বিতরণ সভা অনুষ্ঠিত নওগাঁর রাণীনগরে একজন শিক্ষক দিয়ে চলছে লক্ষীকোলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় বাঘাইছড়িতে বিশ্ব খাদ্য দিবস ২০২১ উপলক্ষে রেলী ও আলোচনা সভা উদযাপন সোনারায় এর নৌকার মাঝি মজিদ মিরপুরে আওয়ামী লীগের দুই চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ গোয়াইনঘাটে তৃতীয় ধাপে ৬ টি ইউনিয়নে ২৮ নভেম্বর ইউপি নির্বাচন আওয়ামীলীগের বিতর্কিত কমিটি বিলুপ্তি ঘোষণা, আহ্বায়ক কমিটি গঠনের নির্দেশ
করোনার তিকক্তোর বিষাদ তিস্তায় বিলীন

করোনার তিকক্তোর বিষাদ তিস্তায় বিলীন

নীলফামারি প্রতিনিধিঃ

নেই কোন বাঁধা, নেই কোন ভয়, নাগরিক জীবনের সমস্ত কোলাহল, সমস্ত ক্লান্তি ধুয়ে মুসে তিস্তার স্রোতে যেন সব কিছু বিলীন হয়ে গেছে। এ যেন করোনার তিকক্তোর বিষাদ তিস্তায় বিলীন হয়ে একাকার। এমনই অকপটে সব দৃশ্য দেখা গিয়েছিল নীলফামারীর তিস্তা ডালিয়া পয়েন্ট এ।

পবিত্র ঈদুল আযাহার ছুটিতে অতিমারী করোনা কে বুড়ো আংগুল দেখিয়ে মানুষের জীবনে আনন্দ উৎসব বন্যা যেন নেমে এসেছে তিস্তা পারের ডালিয়া পয়েন্ট।

প্রকৃতির খোলা হাওয়ায় ঘুরে বেড়ানোও যেন মহাসাগর । গতকাল বুধবার কোরবানীর ঈদ পালিত হয়েছেএবং আগামীকাল শুক্রবার ভোর ৬টা থেকে আগামী ৫ আগষ্ট পর্যন্ত শুরু হতে যাচ্ছে ২৩টি বিধিনিষেধ সহ কঠোর লকডাউন।

তার আগে দলে দলে মানুষজন ছুটছে প্রকৃতির আলো বাতাসে ঘুরতে। আজ বৃহস্পতিবার ঈদের পর দিন নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার ডালিয়া পয়েন্ট এ দেশের সর্ববৃহৎ সেচ প্রকল্প তিস্তা ব্যারাজে নেমেছে হাজারো প্রকৃতি প্রেমী মানুষের ঢল। পরিবার পরিজন নিয়ে বেরিয়ে পড়েছে সকলেই।

বাদ পড়েনি ছেলে বুড়ো,ও বাড়ির সবচেয়ে কনিষ্ঠ জন। শত শত উঠতি বয়সী যুবক তিস্তা নদীতে সাঁতার প্রতিযোগীতায় নেমেছে।

কিন্তু করোনা কালীন সময়ে সরকারে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাস্ক ব্যবহারের নির্দেশনা থাকলে তিস্তা ব্যারেজে ঘুরতে আসা বিভিন্ন এলাকার নারী পুরুষরে মাস্ক পরিধানে কোন বালাই নেই।

অপরদিকে, আবার একটি চক্র তিস্তা ব্যারাজের অদুরে ঘাপটি মেরে ফরগুটি ও কাটা খেলার জুয়ার আসর বসিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে দিচ্ছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, উজানের ঢলে তিস্তায় চলছে উথাল পাতাল ঢেউ। তিস্তার পানি বিপদসীমার ১০ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এ অবস্থায় তিস্তার বুকে দ্রুত বেগে এক পাশ থেকে আরেক পাশে ছুটে চলছে নানা রকম¯িপডবোট বা শ্যালো ইঞ্জিনচালিত নৌকা বা ট্রলার। জনপ্রতি দুইপাক ঘুরলেই গুনতে হবে ৪০– ৫০ টাকা। আর এতেই সকলে মেতে উঠেছে আনন্দ উৎসবে।

মানুষজনরা এই উৎসবে যোগ দিয়েছে। কেউ মিনি বাস, মোটরসাইকেল, কেউ মাইক্রোবাস আবার কেউ ইজিবাইকে

করে ঘুরতে এসেছেন। কোন অনুমোদন ছাড়াই তিস্তা ব্যারাজ জুড়ে বসেছে অস্থায়ী বাজার। নানা রকম পণ্য দিয়ে সাজানো হয়েছে দোকানগুলো। বিভিন্ন খেলনা, বাঁশি, বেলুন, মাটির তৈজসপত্র, খাবারের

দোকান বসেছে। তিস্তা ব্যারাজের পুরো এলাকার সড়ক যানজোটে পরিনত হয়েছে।

নীলফামারী, ডোমার, জলঢাকা, সৈয়দপুর, পঞ্চগড়, দেবীগঞ্জ, লালমনিরহাট, পাটগ্রাম, রংপুরসহ বিভিন্ন এলাকার মানুষে ভরে গেছে তিস্তাপাড়। করোনা ভাইরাসের কারণে ঘরবন্দি জীবন থেকে হাফিয়ে গেছেন সবাই তাই ঘুরতে এসেছেন বলে জানান বিভিন্ন পেশার মানুষ।

উজানের ঢল থাকায় তিস্তা ব্যারাজের ৪৪ টি জলকপাট খুলে রাখা হয়েছে। ফলে তিস্তা পাড়ে দাঁড়ালে ব শোনা যায় পানির শোঁ শোঁ শব্দ ।

উজান থেকে নেমে আসা তিস্তা নদীকে ঘিরে দুইপাড়ের মানুষ গড়ে তুলেছে বসতি ও জীবিকা, নীল জল আর সবুজের রঙে প্রকৃতি একেছে শ্যামল ছবি। ফিরে এসেছে জীববৈচির্ত্য। উত্তরা ইপিজেড থেকে ঘুরতে আসা শামীম ইসলাম বলেন, দেশের সকল বিনোদন কেন্দ্রগুলো করোনার কারনে সরকার বন্ধ রাখায় ঈদের আনন্দে তিস্তা পাড়ে হাজার হাজার মানুষের সমাগম ঘটেছে।

নাম প্রকাশ না করার শতে তিস্তা ব্যারেজের আনছার ক্যাম্পের এক সদস্য জানান, বৃহ¯পতিবার দুপুরের পর ডালিয়া নতুন বাজার থেকে তিস্তা ব্যারেজের উত্তর সাধুর বাজার পর্যন্ত দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। পুলিশ আনসারসহ পাউবো কর্মকর্তারা কোনভাবেই মানুষজনের ঢল থামাতে পারছেনা। বেলা যতই বাড়ছে তিস্তা ব্যারেজে ঘুরতে আসা মানুশের ঢল ততই বাড়ছে। সন্ধ্যা পর্যন্ত থাকবে তিস্তার বুকে প্রকৃতির হাওয়ায় মানষজনের বিচরন এমন কথাই বললেন তিস্তা ব্যারাজ এলাকার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান।

 

জারমান আলি/রা.মি





পুরাতন নিউজ খুঁজুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
©2019-2021 Daily Vorer Kantho. All rights reserved.