রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১২:৩৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
রাজারহাট উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির মানববন্ধন আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার পক্ষে একজোট হয়ে কাজ করতে হবে বাণিজ্যমন্ত্রী সাভারে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের ময়লা পরিষ্কার পবিপ্রবি রোভার এন্ড গার্ল-ইন রোভারের ইউনিফর্ম বিতরণ সভা অনুষ্ঠিত নওগাঁর রাণীনগরে একজন শিক্ষক দিয়ে চলছে লক্ষীকোলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় বাঘাইছড়িতে বিশ্ব খাদ্য দিবস ২০২১ উপলক্ষে রেলী ও আলোচনা সভা উদযাপন সোনারায় এর নৌকার মাঝি মজিদ মিরপুরে আওয়ামী লীগের দুই চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ গোয়াইনঘাটে তৃতীয় ধাপে ৬ টি ইউনিয়নে ২৮ নভেম্বর ইউপি নির্বাচন আওয়ামীলীগের বিতর্কিত কমিটি বিলুপ্তি ঘোষণা, আহ্বায়ক কমিটি গঠনের নির্দেশ
নওগাঁয় সাড়ে ৫ লাখ টাকার প্রকল্প ৭০ হাজার টাকায় চুক্তি

নওগাঁয় সাড়ে ৫ লাখ টাকার প্রকল্প ৭০ হাজার টাকায় চুক্তি

নওগাঁ সংবাদদাতাঃ

নওগাঁ জেলার বদলগাছী উপজেলার মিঠাপুর ইউনিয়নে সাড়ে ৫ লাখ টাকার মাটি কাটার প্রকল্প মাত্র ৭০ হাজার টাকায় চুক্তি হয়ে মাটি কাটার সরদার কর্তৃক যেনতেনভাবে কাজ করার অভিযোগ উঠেছে।

প্রকল্প সূত্রে জানা যায়,উপজেলার মিঠাপুর ইউনিয়নের মিঠাপুর পশ্চিম পাড়া দইয়ের মোড় থেকে খোকার দোকান পর্যন্ত এক কিলোমিটার রাস্তায় মাটি কাটার জন্য গত ২০২০-২০২১ অর্থবছরের উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা বিশেষ কাবিটা প্রকল্পের আওতায় রাস্তায় মাটি কাটার জন্য সাড়ে ৫ লাখ টাকার প্রকল্প বাস্তবায়ন করে।

প্রকল্প সভাপতি সাগরপুর দ্বি-মুখী উচ্চ‍ বিদ‍্যালয়ের কেরানী ও বর্তমান মেম্বার মামুনুর রশিদ মামুন মাত্র ৭০ হাজার টাকায় চুক্তি দিয়ে যেনতেন ভাবে ঘাস চেঁচিয়ে দিয়ে লামছাম মাটি কেটেছেন।

উক্ত বিষয়ে চুক্তিকৃত মাটি কাটার সরদার গোবরচাঁপার জগতনগর গ্ৰামের জালাল উদ্দিনকে এইভাবে মাটি কাটা হচ্ছে কেন জানতে চাইলে তিনি জানান,আমার সঙ্গে এইভাবে মাটি কাটার জন্য ৭০ হাজার টাকায় চুক্তি হয়েছে ভাই।

কে‌ এই ৭০ হাজার টাকায় চুক্তি করেছে জানতে চাইলে লেবার সরদার জালাল উদ্দিন জানান,চেয়ারম্যান ফিরোজ হোসেনের সাথে আমার এ চুক্তি হয়েছে।

উক্ত প্রকল্পের মাটি কাটা বিষয়ে সাংবাদিক সংস্থা বদলগাছীর সেক্রেটারির মোবাইল ফোন থেকে চেয়ারম্যান ফিরোজ হোসেনের সঙ্গে কথা বলেল চেয়ারম্যান ফিরোজ হোসেন বলেন,আপনারা এতো ঝামেলা না করে চা খেলে খেয়ে জান।

উক্ত প্রকল্পের মাটি কাটার বিষয়ে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান জানান,আমি শুনেছি একটু অনিয়ম হয়েছে।তবে আমি ফাইনাল বিলের টাকা আটকে রেখেছি। আপনারা নিউজ করলে ঝামেলা হবে ভাই, আমাকে কিছু সময় দিন,আমি ব্যস্ত থাকায় যেতে পারি নাই। আমি চেয়ারম্যানকে এ ব্যপারে কঠোরভাবে বলব।

স্থানীয় এলাকাবাসীর বুলু ,ধলু , শফিকুল জানান ঘাস চেঁচিয়ে সমান করে যেনতেন ভাবে মাটি কেটে গেছে।
গ্ৰামে কতিপয় নারী জানান,রাস্তাটি বড় বড় গর্ত থেকে উঁচু নিচু সমান করেছেন মাত্র, এতো টাকার প্রকল্প আছে কেউ জানে না।

এলাকায় সচেতন মহল জানান, সাড়ে ৫ লাখ টাকার প্রকল্প বাস্তবায়ন কিন্তু ৭০ হাজার টাকায় চুক্তি করেছেন,এটা কী মগের মল্লুক নাকি।সব শেষে আবার ও মাটি কাটার দাবি স্থানীয় এলাকাবাসীর।#

আব্দুল মজিদ মল্লিক/ই.না.তা





পুরাতন নিউজ খুঁজুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
©2019-2021 Daily Vorer Kantho. All rights reserved.