মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:৫৯ পূর্বাহ্ন

রংপুরে বাড়ছে করোনায় আক্রান্তের হার

রংপুরে বাড়ছে করোনায় আক্রান্তের হার

 

রংপুর সংবাদদাতাঃ

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কিংবা দেশীয় চিকিৎসক মহলও মনে করেন, করোনায় মাস্ক ও সেনিটাইজার ব্যবহারসহ এ সংক্রান্ত যাবতীয় স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণে করোনা থেকে সুরক্ষা দিতে পারে। এমনকি টিকা গ্রহণ করলেও এই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। আজ লকডাউনের মেয়াদ আগামী ১০ আগস্ট পযর্ন্ত বাড়ানো হয়েছে।

রংপুর বিভাগে করোনা আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ৫শ২ জন।
গত ২৪ ঘণ্টায় রংপুর বিভাগে করোনা আক্রান্ত হয়ে নতুন করে ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ৫শ২ জন।
আজ মঙ্গলবার (০৩ আগস্ট) দুপুরে রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. মো. মোতাহারুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

স্বাস্থ্য পরিচালকের কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, গতকাল সোমবার (২ আগস্ট) সকাল আট টা থেকে আজ মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) সকাল আটটা পর্যন্ত করোনায় মারা যাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে রংপুরের ৪ জন, দিনাজপুরের ৪ জন, গাইবান্ধার ৩ জন সহ ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড় ও নীলফামারীর ১ জন করে রয়েছেন।

এ সময়ে রংপুর বিভাগে ১,৭৩৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এতে দিনাজপুরের মোট ১১৫ জন, রংপুরে মোট ৮৭ জন, নীলফামারী জেলায় ৬৩ জন, পঞ্চগড় জেলায় ৬২ জন, কুড়িগ্রাম জেলায় ৫৯ জন, গাইবান্ধা জেলায় ৫৬ জন, ঠাকুরগাঁও জেলায় ৩৭ জন ও লালমনিরহাট জেলায় ২৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত বিবেচনায় আক্রান্তের হার ২৮.৯৫%।

নতুন করে মারা যাওয়া ১৪ জন সহ রংপুর বিভাগে করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯শ ৬৪ জনে। এর মধ্যে দিনাজপুর জেলায় ২৭৬ জন, রংপুর জেলায় ২১২ জন, ঠাকুরগাঁও জেলায় ১৮৬ জন, নীলফামারী জেলায় ৬৯ জন, পঞ্চগড় জেলায় ৬১ জন, লালমনিরহাট জেলায় ৫৬ জন, কুড়িগ্রাম জেলায় ৫৪ জন ও গাইবান্ধা জেলায় ৫০ জন রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৪শত ৪৭ জন।

বিভাগের ৮ জেলায় এখন পর্যন্ত মোট ৪৫,৯২৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছেন। এর মধ্যে দিনাজপুুরে ১২,৯২৫ জন, রংপুরে ১০,২০২ জন, ঠাকুরগাঁওয়ে ৬,২৪৩ জন, গাইবান্ধায় ৩,৯৫১ জন, নীলফামারীর ৩,৭৪১ জন, কুড়িগ্রামের ৩,৭০০ জন, লালমনিরহাটের ২,৩০১ জন এবং পঞ্চগড়ের ২,৮৬৬ জন রয়েছেন।

করোনাভাইরাস শনাক্তের শুরু থেকে এ পর্যন্ত রংপুর বিভাগে ২,২০৫৪৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। বিভাগের ৮ জেলার মধ্যে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু দিক দিয়ে যথাক্রমে দিনাজপুর, রংপুর ও ঠাকুরগাঁও জেলায়।

সম্প্রতি রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অত্যাবশকীয় মেশিন ও আধুনিক বেড জরুরি ভিত্তিতে সরবরাহের জন্য স্বাস্থ্যমন্ত্রী বরাবর লিখিত অনুরোধ জানিয়েছে রংপুর-৪ আসনের সাংসদ ও সরকারের বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

ই.না.তা





পুরাতন নিউজ খুঁজুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  
©2019-2021 Daily Vorer Kantho. All rights reserved.